উৎসাহ-উদ্দীপনায় গ্রীসে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উদ্যাপন

উৎসাহ-উদ্দীপনায় গ্রীসে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উদ্যাপন

গ্রীস প্রতিনিধি : বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে “মুজিব বর্ষের আহবান, দক্ষ হয়ে বিদেশ যান এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গ্রীসে বাংলাদেশ দূতাবাসে  ১৮ ডিসেম্বর পালন করা হল আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০। গ্রীসসহ সারা বিশ্বে চলমান করোনা মহামারী এবং গ্রীসের লক-ডাউন পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে প্রবাসী ভাই-বোনদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে এ বছর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের অনুষ্ঠান অন-লাইনে জুম প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আয়োজন করা হয়। পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত ও পবিত্র গীতা পাঠের মাধ্যমে দূতাবাসের অনুষ্ঠান শুরু হয় এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয়ের প্রদত্ত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।
মান্যবর রাষ্ট্রদূত মহোদয়ের সভাপতিত্বে দূতাবাসের কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) জনাব মো: খালেদের সঞ্চালনায় মুজিব বর্ষে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে বিশেষ অন-লাইন আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কাউন্সেলর জনাব সুজন দেবনাথ এবং দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীগণ। আলোচনার শুরুতে দূতাবাসের বিদায়ী শ্রম কাউন্সেলর ড. সৈয়দা ফারহানা নূর চৌধুরী দূতাবাস ও বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রবাসীদের গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে সবাইকে অবহিত করেন। আলোচনা পর্বে অংশ নেন প্রবাসী বাংলাদেশীদের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, আঞ্চলিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধি, নারী নেতৃবৃন্দ এবং বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রীসের নেতৃবৃন্দসহ গ্রীসের বিভিন্ন শহর এবং দ্বীপাঞ্চলে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা। প্রবাসী বক্তাগণ আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের প্রতিপাদ্য ও চেতনাকে সামনে নিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। বক্তাগণ এই করোনা পরিস্থিতিতে অন-লাইনে আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান। তারা দেশ ও জাতির কল্যাণে সরকারের নানমূখী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মানে অবদান রাখারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জনাব আসুদ আহমেদ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুদৃঢ় নেতৃত্ব এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ আমরা বঙ্গবন্ধুর সপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মানে এগিয়ে যাচ্ছি। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশীদের রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১-এর লক্ষ্য অর্জনের জন্য কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। এছাড়া তিনি জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকীতে দূতাবাসের গৃহিত সকল কর্মসূচিতে সক্রিয়ভাবে অংশ নেবার জন্য প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানান। এসময় তিনি বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অনন্য অবদান এবং বাংলাদেশের কৃষ্টি-সংস্কৃতি, ঐতিহ্য বিদেশের মাটিতে তুলে ধরার জন্য তাদের প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতে তাদের উত্তরোত্তর সাফল্য, সমৃদ্ধি ও সুস্ব্যাস্থ কামনা করেন।
বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত এ অনলাইন জুম প্লাটফর্মের আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।