৩১ শয্যাবিশিষ্ট

সিলেটে করোনা চিকিৎসায় খাদিমপাড়া হাসপাতাল চালু

সিলেটে করোনা চিকিৎসায় খাদিমপাড়া হাসপাতাল চালু

ইমরান মাহমুদ,সিলেট: সিলেটে সরকারি ব্যবস্থাপনায় দ্বিতীয় করোনা আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে যাত্রা শুরু করেছে খাদিমপাড়া ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল।
শনিবার দুপুরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করেন সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমান এনডিসি, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. সুলতানা রাজিয়া, জেলা প্রশাসক কাজী এমদাদুল ইসলাম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, বিভাগীয় স্বাস্থ্য সহকারী পরিচালক ডা. মো. আনিসুর রহমান, সিলেট জেলা সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল প্রমুখ।
সিলেটে সরকারিভাবে করোনা চিকিৎসার জন্য শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের পর খাদিমপাড়া ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালটি চালু হলো।এছাড়া বেসরকারিভাবে নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান জানান, শনিবার থেকে সিলেট শহরতলির খাদিমপাড়াস্থ ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে এই চিকিৎসা প্রদান শুরু হচ্ছে। এ হাসপাতালে সাধারণ মানুষ বিনামূল্যে করোনার চিকিৎসাসেবা পাবেন।
সিলেটে করোনা আক্রান্ত রোগী বেড়ে যাওয়ায় সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ৩১ শয্যাবিশিষ্ট খাদিমপাড়া হাসপাতাল ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে করোনা চিকিৎসার জন্য চালু করার সিদ্ধান্ত হয।এ দুই হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা ৬২টি। সিদ্ধান্তের পর হাসপাতল দুটিকে প্রস্তুত করার কাজ শুরু হয়। বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রপাতি আনা, অক্সিজেনের ব্যবস্থা করাসহ আনুষাঙ্গিক কাজ করা হয়েছে। তবে এ দুই হাসপাতালে আইসিইউ সুবিধা থাকছে না।
ডা. আনিসুর রহমান বলেন,খাদিমপাড়া হাসপাতাল চালু হয়েছে। দক্ষিণ সুরমা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও চিকিৎসা সেবা শুরু হয়ে যাবে শিগগিরই ।
তিনি জানান, খাদিমপাড়াস্থ হাসপাতালে বর্তমানে সিলিন্ডার দিয়ে অক্সিজেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরবর্তীতে স্থায়ীভাবে অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করা হবে।যেসব রোগীর আইসিইউ প্রয়োজন হবে, তাদেরকে দ্রুত শামসুদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে আসা হবে।এক্ষেত্রে সবসময় অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত থাকবে।
খাদিমপাড়া ৩১ শয্যার এ হাসপাতালে তিনটি শিফটে চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্যরা কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল।
সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের মহাসচিব কর্নেল (অব.) আবদুস সালাম বীরপ্রতীক জানান, খাদিমপাড়া হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেবা দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে । এ হাসপাতালের আনুষঙ্গিক ব্যয় নির্বাহের জন্য ইতোমধ্যে বড় অঙ্কের একটি তহবিলও গঠন করেছে কিডনি ফাউন্ডেশন।
সিলেট বিভাগে বর্তমানে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪ হাজার ৫৮ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় অর্ধেকেরও বেশি ২ হাজার ১৮০ জন। এছাড়া সুনামগঞ্জে ৯২৭ জন, হবিগঞ্জে ৫৩৭ জন ও মৌলভীবাজারে ৪১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।সিলেটের চার জেলায় ২৫৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন বিভাগের ৯৮০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী। মৃত্যুবরণ করেছেন ৬৭ জন।